জুভেন্টাসের বিপক্ষে ম্যানইউয়ের জয়

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ৮, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক : ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর গোলে শুরুতে পিছিয়ে পড়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাটকীয় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইংলিশ ক্লাবটি।

বুধবার রাতে জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে ‘এইচ’ গ্রুপের ম্যাচটি ২-১ গোলে জেতে অতিথিরা। গত মাসে ইউনাইটেডের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছিল জুভেন্টাস।

নিজেদের মাঠে খেলতে নেমে ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে ভাগ্যের ফেরে গোলবঞ্চিত হয় জুভেন্টাস। ডান দিক থেকে রোনালদোর পাস ডি-বক্সে মাঝ বরাবর পেয়ে সামি খেদিরার নেওয়া শট পোস্টে লাগে।

বিরতির পর ম্যাচের ৫০তম মিনিটে পাওলো দিবালার বাঁকানো শট ক্রসবারে লাগলে ফের হতাশ হতে হয় জুভেন্টাসকে। অবশেষে ম্যাচের ৬৫তম মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা মেলে। রোনালদোর গোলে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। গতিতে সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারকে পিছনে ফেলে লিওনার্দো বোনুচ্চির উঁচু করে বাড়ানো বল দুর্দান্ত ভলিতে জালে পাঠান রোনালদো। ক্লাব ফুটবলে ইউরোপ সেরার মঞ্চে জুভেন্টাসের হয়ে এটা তার প্রথম গোল। আর সব মিলিয়ে হলো ১২১টি।

ওই গোলটাই জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিল ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু শেষ মুহূর্তের নাটকীয়তায় ম্যাচের চিত্র পুরোটাই যায় উল্টে।

ম্যাচের ৭৯তম মিনিটে আন্দের এররেরাকে তুলে নিয়ে হুয়ান মাতাকে নামান ইউনাইটেড কোচ। আর মাঠে নামার পর ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে হুয়ান মাতার গোলে সমতায় ফেরে ম্যানইউ। অসাধারণ এক ফ্রি-কিকে দলকে সমতায় ফেরান স্প্যানিশ এই মিডফিল্ডার। চলতি আসরে জুভেন্টাসের জালে এটাই প্রথম গোল।

শুধু তাই নয়, ম্যাচের ৮৯তম মিনিটের সৌভাগ্যপ্রসূত জয়সূচক গোলেও জড়িয়ে আছে মাতার নাম। বাঁ দিক থেকে তার ফ্রি-কিক ঝাঁপিয়ে গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি ঠেকানোর পর ফিরতি বল গোলমুখে বোনুচ্চির মাথায় লাগার পর আলেক্স সান্দ্রোর গায়ে লেগে ভিতরে ঢুকে যায়। আর শেষ মুহূর্তের ওই আত্মঘাতী গোলটাই জয় এনে দিয়েছে ম্যানইউকে।

এ ম্যাচে হেরে গিয়েও চার ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে জুভেন্টাস। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পয়েন্ট ৭। ৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে ভালেন্সিয়া। ইয়াং বয়েজের পয়েন্ট ১।

সূত্র: গোল ডটকম