জিম্বাবুয়ে লজ্জা দিলো টাইগারদের

রবিবার, নভেম্বর ৪, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক: দেশের মাটিতে চেনা পরিবেশে যেন ব্যাট চালাতেই ভুলে গেছেন টাইগাররা। একের পর এক উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন জিম্বাবুয়ে বোলারদের। লিটন-ইমরুল থেকে শুরু করে মাহমুদুল্লাহ সকলেই। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে জিম্বাবুয়ের করা ২৮২ রানের লিডে খেলতে নেমে বাংলাদেশ গুটিয়ে যায় ১৪৩ রানে। টাইগাররা পিছিয়ে আছে এখনো ১৩৯ রানে।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করে জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংসে ১০ উইকেট হারিয়ে ২৮২ রান তোলে। গতকাল শনিবার থেকে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হয়। বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ১০ উইকেট হারিয়ে তোলে ১৪৩ রান।

টাইগারদের মধ্যে একমাত্র ব্যতিক্রম ছিলেন আরিফুল হক। অথচ এ টেস্টেই অভিষেক হয়েছে তার। ৪১ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। এ ছাড়া মুশফিক ৩১, মেহেদী মিরাজ ২১ ও মমিনুল হক ১১ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। লিটন-ইমরুল কিংবা শান্ত-মাহমুদুল্লাহ কেউই দুই অঙ্কের ঘরের দেখা পাননি।

জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ তিন উইকেট করে নেন টেন্ডাই চাতারা ও সিকান্দার রাজা। এ ছাড়া কাইল জার্ভিস নেন দুই ও শেন উইলিয়মাস নেন একটি উইকেট।

প্রথম ইনিংসে তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণির সামনে দাঁড়াতেই পারেনি জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানরা। ২৩৬ রান ও ৫ উইকেট হাতে নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করলেও মাত্র ৪৬ রান যোগ করে জিম্বাবুয়ে সবকটি উইকেট হারিয়ে ফেলে। তাইজুল ৬ উইকেট নিয়ে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপ একাই চূর্ণ করে দেন।

জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৮ রান করেন শেন উইলিয়ামস। হ্যামিলটন মাসাকাদজা ৫২, চাকাব্বা ২৮ ও সিকান্দার রাজা ১৯ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। পিটার মুর ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

টাইগারদের হয়ে প্রথম দিন তাইজুল ইসলাম দুই উইকেট নিলেও আজ রোববার জিম্বাবুয়ের পাঁচ উইকেটের চারটিই যায় তাইজুলের পকেটে। এ ছাড়া অভিষিক্ত নাজমুল ইসলাম অপুর ঝুলিতে জমা হয় দুই উইকেট। আবু জায়েদ রাহী ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ একটি করে উইকেট নেন।

প্রথম দিন ম্যাচের শুরুর দিকে টাইগার স্পিনাররা ছড়ি ঘোরালেও, সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ম্যাচের লাগাম টেনে ধরে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু দ্বিতীয় দিন ঠিকই টাইগার বোলাররা আর কোনো সুযোগ দেননি জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানদের।

তবে প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিনও ব্যর্থ ছিলেন মেহেদী মিরাজ। ২৭ ওভার বল করে একটি উইকেটও নিতে পারেননি। একমাত্র পেসার হিসেবে খেলেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে অভিষেক হওয়া আনু জায়েদ রাহী।