আমতলীতে ধর্ষক গ্রেফতার

শনিবার, নভেম্বর ৩, ২০১৮

বরগুনা প্রতিনিধি : বরগুনার আমতলী পৌরশহরের খোন্তাকাটা গ্রামে দু’সন্তানের জননী গৃহবধুকে (২৪ )কে বখাটে মাহবুব ম্যালকার জোড় পূর্বক ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে আমতলী থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ধর্ষক মাহবুব ম্যালকারকে রাতেই গ্রেফতার করেছে।শনিবার দুপুরে আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে প্রেরন করেছে থানা পুলিশ ।

স্থানীয় ও থানা সূত্রে জানা গেছে, পৌরশহরের খোন্তাকাটা এলাকায় স্বামী পরিত্যক্তা দু’ সন্তানের জননী দু.সন্তানকে নিয়ে বসবাস করতেন। দীর্ঘদিন যাবৎ বখাটে মাহবুব ম্যালকার গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তার কু প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় বখাটে মাহবুব গৃহবধূকে বিভিন্ন সময় হুমকি দেয়।

গত সোমবার রাতে গৃহবধূর দর্জির দোকানের কাষ্টমার পরিচয় দিয়ে দরজা খুলতে বলে। দরজা খুলে দিলেই বখাটে মাহবুব ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় গৃবধূর ডাক চিৎকার দিলে লোকজন ছুটে আসলে ধর্ষনকারী মাহবুব পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ধর্ষীতা গৃহবধু বাদী হয়ে আমতলী থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই ধর্ষক মাহবুবকে গ্রেফতার করেন। শনিবার দুপুরে ধর্ষক মাহুবুবকে আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করেছে। আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ধর্ষিতা গৃহবধূকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

গৃহবধূ জানান, বখাটে মাহবুব দীর্ঘদিন যাবৎ কু প্রস্তাব দিয়ে আসছেছিল। আমি রাজি না হওয়ায় মাহবুব ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে জোড় পূর্বক ধর্ষন করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন মিলন বলেন মাহবুব ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। আসামীকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।