অতিরিক্ত নোটিফিকেশনে আসক্তি কি মানসিক চাপে ফেলে?

বুধবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৮

ঢাকা : বর্তমানে প্রায় সকলকের প্রিয় সঙ্গী তার স্মার্টফোন। হাতে একটি স্মার্টফোন থাকলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লম্বা সময় কাটিয়ে দেয়া যায়। তবে সব সময়েই ফোন চেক করা বা নোটিফিকেশনের অপেক্ষা করা কিন্তু আপনাকে মানসিকভাবেও চাপে ফেলে দিতে পারে।

সারাদিন একবারও ফোনের নোটিফিকেশন টোনটা না বেজে উঠলে যদি ভাল না লাগে তবে তা মোটেও ভাল লক্ষণ নয়। এই ধরনের ভাবনা কিন্তু আপনাকে মানসিকভাবে দুর্বল করে তোলে। যত বেশি ফোনের দিকে তাকিয়ে নোটিফিকেশনের অপেক্ষা করেন, ততই বাড়ে মানিসক চাপ।

বাড়ি বা কর্মক্ষেত্রের কাজের মাঝে হঠাৎ নোটিফিকেশন আপনার মন খারাপ বা অন্যমনস্ক করে দিতে পারে। আমেরিকায় একটি জরিপে করে দেখা গিয়েছে, নোটিফিকেশন দেখার পর কোনো ব্যক্তির কাজে মন ফেরাতে গড়ে ২৩ মিনিট ১৫ সেকেন্ড সময় লাগে।

সব কাজ একসঙ্গে করতে গিয়ে কোনোটাই সঠিকভাবে করা হয় না। তাই প্রয়োজনীয়তা বুঝে নিজের কাজের সময়গুলো ভাগ করে নেয়াই ভাল।

নোটিফিকেশন মিস হয়ে এমন চিন্তায় ঘুমের সময়ও ইন্টারনেট চালু রাখেন। এতে বাড়ে মানসিক চাপ।

নোটিফিকেশনের অপেক্ষা আপনার মাথায় অদ্ভুত প্রভাব ফেলে। মস্তিষ্ক একই সময় অনেক কাজ একসঙ্গে করার চেষ্টা করে। স্বাভাবিকভাবেই তাতে মস্তিষ্কে খারাপ প্রভাব পড়ে।