পূজার আনন্দ নেই বলিউডের চার ছবিতে

বুধবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক : শারদীয় দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে গত শুক্রবার মুক্তি পেয়েছিলো বলিউডের চারটি সিনেমা- ‘জালেবি’, ‘হেলিকপ্টার ইলা’, ‘তুম্বড’ এবং ‘ফ্রাই ডে’। কিন্তু সিনেমাগুলো বক্স অফিসকে তেমন আকর্ষিত করতে পারেনি। ফলে সিনেমাগুলোতে পূজার আনন্দ নেই বললেই চলে।

এমনকি ভাল ব্যবসা করেছে এমন ছবির প্রথম সপ্তাহের কালেকশনের থেকেও কম এই চারটি ছবির প্রথম সপ্তাহের সম্মিলিত কালেকশন।

রিয়া চক্রবর্তী এবং বরুণ মিত্র অভিনীত ‘জালেবি’ ছবিটির তিন দিনের শেষে কালেকশন ১ কোটি ৬৫ লক্ষ টাকার কাছাকাছি। শুক্রবারে ৪০ লক্ষ, শনিবার ৬০ লক্ষ এবং রবিবারে ৬৫ লক্ষ টাকার মতো ব্যবসা করেছে ‘জালেবি’।

জালেবি সিনেমার পোস্টার

তবে যদি মনে করেন, ‘জালেবি’ ছবিতে তো সেই অর্থে কোনো বড় স্টার নেই। অর্থাৎ, সেই অনুপাতে ভালই ব্যবসা করেছে ‘জালেবি’।

কিন্তু তথাকথিত বড় তারকারা রয়েছেন যে ছবিতে সেই ছবির ব্যবসার অঙ্কও এক্কেবারেই চোখে পড়ার মতো নয়। ‘হেলিকপ্টার ইলা’ ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন কাজল। সেই হেলিকপ্টারেরও যেন মনে হচ্ছিল তেল একদমই শেষ পর্যায়ে। শুক্রবারে ‘হেলিকপ্টার ইলা’ মাত্র ৭৫ লক্ষ টাকার মতো ব্যবসা করতে সক্ষম হয়েছে। আর শনি ও রবিবারে যথাক্রমে ১ কোটি ১০ লক্ষ এবং ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা ঝুলিতে সংগ্রহ করতে পেরেছে। শুরুর দিনগুলোতে মোটের উপর ‘হেলিকপ্টার ইলা’র সংগ্রহ ৩ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা।

কথা হচ্ছে ‘তুম্বড’ ছবিটি নিয়ে। কথা হচ্ছে ‘তুম্বড’ ছবিটির ভিজুয়ালাইজেশন নিয়ে। চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে, কী এমন ছবি, যা তৈরি করতেই লেগে গেল ছটা বছর? দুই নামজাদা পরিচালক আনন্দ এল রাই এবং আনন্দ গাণ্ধির নামও জুড়ে রয়েছে এই ছবির সঙ্গে। শুক্রবার থেকে রবিবার অবধি ‘তুম্বড’ ছবিটির কালেকশন ২ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা। তবে সমালোচকদের তীব্র প্রশংসা কুঁড়িয়েছে এই ‘তুম্বড’।

গোবিন্দা অভিনীত ‘ফ্রাই ডে’ ছবিটি পুরোপুরিই মুখ থুবড়ে পড়েছে। সোমবার অবধি ‘ফ্রাই ডে’ মাত্র ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকার ব্যবসা করেছে। প্রথম দিনেই গোবিন্দার এই ছবিটি মাত্র ২৫ লক্ষ টাকার ব্যবসা করতে পেরেছিল।

এই চারটি ছবি মিলিয়ে এই সপ্তাহান্তে বক্স অফিসে মোট হিসেব দাঁড়াচ্ছে ৮ কোটি ৬৫ লক্ষ টাকা।

ফিল্ম ট্রেড অ্যানালিস্ট অতুল মোহনের কথায়, ‘‘ফেস্টিভ মুডে এটাই এখন ট্রেন্ড। কোনও ছবি যদি সত্যিই স্পেশ্যাল হয়, তা হলে আলাদা কথা। কিন্তু সচরাচর পরিচালকেরা এমন উৎসবের সময়ে ছবি রিলিজই করতে চান না। গুজরাটে সকলে ডান্ডিয়া নিয়ে মেতে রয়েছেন, উত্তরে নবরাত্রি, কলকাতায় সক্কলে দুর্গাপুজো নিয়ে মত্ত রয়েছেন, তা হলে ছবিটা দেখবেন কখন? আর তা ছাড়া সিনেমাই কিন্তু বিনোদনের একমাত্র রসদ নয়।’’