কাল মুখোমুখি হচ্ছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

সোমবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক : রাশিয়া বিশ্বকাপ শেষেই জানা গিয়েছিল পরবর্তী আন্তর্জাতিক সূচিতে প্রীতি ম্যাচ খেলবে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। তবে তখনো নিশ্চিত ছিলো না কবে, কোথায় মুখোমুখি হবে মেসির আর্জেন্টিনা ও নেইমারের ব্রাজিল। অপেক্ষায় প্রহর শেষ করে আগামীকাল জেদ্দায় বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অগ্নিগর্ভ প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। দু’দলই এখন সৌদি আরবে। রিয়াদে প্রস্তুতিপর্ব শেষ করে এখন ‘সুপার ক্লাসিকো’ মহারণের অপেক্ষায় প্রহর গোনা।

সব কিছু ঠিক থাকলেও আপত্তি শুধু ‘প্রীতি ম্যাচ’ শব্দযুগল নিয়ে। আপত্তি উঠেছে দুই শিবির থেকেই। শুক্রবার স্বাগতিক সৌদি আরবকে ২-০ গোলে হারানোর পর ব্রাজিল কোচ তিতে বলে বলেন, ‘ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনা কখনও প্রীতি ম্যাচ হয় না।’ সেই কথাটাই কাল বের হয়ে আসলো আর্জেন্টিনা ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দির কণ্ঠে, ‘আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের মধ্যে কখনও প্রীতি ম্যাচ হয় না। এ ম্যাচ ঘিরে থাকে অনেক আবেগ ও উত্তেজনা। গত মাসে আমরা কলম্বিয়ার মতো দলের বিপক্ষে খেলেছি। তারাও দুর্দান্ত দল। কিন্তু ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলা মানে অন্য কিছু। ওদের বিপক্ষে মাঠে নামলে সেটা আর প্রীতি ম্যাচ থাকে না।

নতুন চেহারার এক দল নিয়ে ব্রাজিলের মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা। মেসি, আগুয়েরো, হিগুয়াইন ও ডি মারিয়ার মতো মহাতারকাদের অনুপস্থিতিতে দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে ইরাককে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিলেও ব্রাজিলের বিপক্ষে কোনোভাবেই ফেভারিট বলা যাচ্ছে না আর্জেন্টিনাকে।

তরুণ দলটি এই দলটিকেই আর্জেন্টাইন ফুটবলের ভবিষ্যৎ মনে করছেন ইকার্দি, ‘আমরা একটি নতুন প্রকল্প অনুসরণ করছি। অনেক নতুন খেলোয়াড় আসছে, যাদের অনেকের গায়ে প্রথমবারের মতো উঠছে আর্জেন্টিনার জার্সি। পালাবদলের এই সময়ে সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে। আমরা সবাই মিলে ভবিষ্যতের জন্য একটি ভিত তৈরি করার চেষ্টা করছি। কিছু নির্মাণের চেষ্টা চলছে। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

ব্রাজিলের বিপক্ষে অনভিজ্ঞ এই দলটিকে নেতৃত্ব দেবেন পাওলো দিবালা ও ইকার্দি। শতভাগ ফিট না হওয়ায় ইরাকের বিপক্ষে খেলা হয়নি ইকার্দির। চোট কাটিয়ে ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নামতে প্রস্তুত ইন্টার মিলান তারকা, ‘এখন আমি পুরোপুরি সুস্থ। মাঠে নামতে প্রস্তুত।’