ডায়াবেটিসের লক্ষণগুলো জেনে নিন

মঙ্গলবার, অক্টোবর ৯, ২০১৮

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ইদানীং যে রোগটির কথা বেশি শোনা যায় তা হলো ডায়াবেটিস। শুধু শহরে নয়, গ্রামের মানুষও সকালে হাটতে বের হচ্ছেন, খোঁজ নিলে দেখা যায় অধিকাংশই ডায়াবেটিসে আক্রান্ত।

সাধারণত শরীরের সুগারের মাত্রা বেড়ে গেলে ডায়াবেটিস হয়। সুগারে মাত্রা কম, বেশি হয়ে মানুর মারা যাওয়ার উদাহারণও কম নয়। তবে একটু সাবধানতা অবলম্বন করলে ও উপসর্গ দেখা দিলেই সচেতন হলে কমানো যায় অনেক অসুখের প্রবণতা। ডায়াবেটিস আক্রমণের আগে নানাভাবে জানান দেয় শরীরে। সাবধানতাই হতে পারে এ রোগের অন্যতম প্রধান প্রতিরোধ ব্যবস্থা।

১. আপনার যদি ঘন ঘন প্রস্রাব হয়, তাহলে সাবধান হোন। রক্তে শর্করা বাড়লে তা কিডনিতে চাপ সৃষ্টি করতে থাকে, শরীর থেকে অতিরিক্ত শর্করা বার করে দেওয়ার জন্যই এই চাপ। অনেকে আবার প্রস্রাবের তাড়না বুঝে ওঠার আগেই প্রস্রাব করে ফেলেন। এমন হলে অবশ্যই ব্লাড সুগার পরীক্ষা করান।

২. আপনার হাত-পা কিংবা কোন আঙুল কি অবশ হয়ে পড়ছে? এমন হলে দ্রুত সতর্ক হোন। রক্তে শর্করা বাড়ার এটি অন্যতম লক্ষণ।

৩. রক্তে শর্করা বাড়লে তা বার করার জন্য কিডনিতে চাপ দেয়, তখন প্রস্রাব করতে হয়। আর অতিরিক্ত প্রস্রাবের কারণে শরীরের পানি বেরিয়ে যায়। তাই পানির তৃষ্ণা পায় প্রবলভাবে। এমনকি, রাতে ঘুমের মধ্যেও জিভ শুকিয়ে পানির তৃষ্ণা পায় বারবার।

৪. শরীরে অনেক দিন ধরেই ঘা আছে, শুকাচ্ছে না? এমন হলে ডাক্টার দেখাতে পারেন।

৫. চোখে আর আগের মতো দেখছেন না? হঠাৎ চোখে কম দেখছেন? চশমা বদলানো বা চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ ছাড়াও একবার ব্লাড সুগার পরীক্ষা করান। রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে গেলে তার প্রভাব পড়ে দৃষ্টিশক্তির ওপর।

৬. অল্প পরিশ্রমেই ক্লান্ত হয়ে পড়ছেন? হাঁপিয়ে যাচ্ছেন প্রায়ই? খুব অল্পেই হাঁপিয়ে ওঠা রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধির লক্ষণ। এর ফলে ডিহাইড্রেশনের শিকার হয় শরীর। ফলে দুর্বলতা বাড়ে।