যৌন হেনস্থা নিয়ে সোনমের কথায় ক্ষেপে গেলেন কঙ্গনা

সোমবার, অক্টোবর ৮, ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক : হলিউডের পর ‘মি টু ক্যাম্পেইনে’ সামিল এবার গোটা বলিউড। নানা পাঠেকর যৌন হেনস্থা করেছেন বলে যখন তনুশ্রীর অভিযোগে সরগরম গোটা বি টাউন, সেই সময় আরো এক জনপ্রিয় পরিচালকের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন কঙ্গনা। বলিউড ‘কুইনের’ নিশানায় এবার পরিচলক বিকাশ বহেল।

২০১৪ সালে ‘কুইন’-এর শুটিংয়ের সময় বিকাশ নাকি তাকে প্রতিদিন জড়িয়ে ধরতেন। কখনো তার ঘাড়ে, গলায় মুখ গুঁজে দিতেন আবার কখনো শক্ত করে জড়িয়ে ধরে তার চুলের মধ্যে মুখ গুঁজে দিতেন বিকাশ। বলিউড ‘কুইন’-এর এই মন্তব্য ঘিরে যখন তোলপাড় শুরু হয়েছে, সেই সময় লাইমলাইটে চলে এলেন সোনম কাপুরও।

বিকাশ বহেলকে নিয়ে কঙ্গনা যা বলছেন, তা বিশ্বাস করা কষ্টকর বলে মন্তব্য করেন অনিল-কন্যা। বেশ কিছুদিন ধরে কঙ্গনা যা বলছেন আর যা যা করছেন, তার সবটা বিশ্বাস করা বেশ কঠিন বলেও জানান সোনম কাপুর।

সোনমের ওই কথা শুনেই ক্ষেপে যান কঙ্গনা। নায়িকা বলেন, তিনি যখন তার ‘মি টু ক্যাম্পেইনে’ নিজের অভিজ্ঞতা জানাচ্ছেন, তখন সোনম এই ধরনের মন্তব্য করতে পারেন না কিছুতেই।

বলিউড ‘কুইন’-এর প্রশ্ন, ‘আমার বিচার করার স্পর্ধা সোনমকে কে দিয়েছে?’ শুধু তাই নয়, ভালো অভিনেত্রী হিসেবে সোনম যেমন নিজের পরিচয় গড়ে তুলতে পারেননি, তেমনি তিনি একজন ভালো বক্তা, এমন কথাও কারো জানা নেই। তাই না বুঝেশুনে সোনম যেন তার সম্পর্কে মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকেন, এমন মন্তব্যও করেন কঙ্গনা রানাউত।

সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউত অভিযোগ করেন, ২০১৪ সালে ‘কুইন’-এর শুটিংয়ের সময় বিকাশ বহেল সবে সবে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু, ঘরে নতুন বউ রেখে প্রতিদিন নিত্য নতুন যৌন সঙ্গিনী খুঁজে বেড়াতেন বিকাশ। শুধু তাই নয়, প্রতিদিন অনেক রাত পর্যন্ত পার্টি করতেন বিকাশ। কিন্তু, তার তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ার অভ্যেস ছিল। আর সেই কারণেও তাকে বিকাশের কাছে আজেবাজে কথা শুনতে হট বলেও অভিযোগ করেন কঙ্গনা রানাউত। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই বলিউডে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

তবে এই প্রথম নয়, এর আগে হৃত্বিক রোশনের বিরুদ্ধেও মুখ খোলেন কঙ্গনা। তার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে, তাকে ব্যবহার করেছেন হৃত্বিক। এমন অভিযোগও করেন তিনি। যা নিয়ে আইনি নোটিস চালাচালি থেকে শুরু করে সাংবাদিক সম্মেলন সবকিছুতেই হাজির হন হৃত্বিক, কঙ্গনা। সূত্র: জি-নিউজ